ঝালকাঠিতে ভাসমান বেডে সব্জি চাষ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে - অনলাইন দৈনিক সমবাদ,সত্য সংবাদ প্রকাশে ২৪ঘন্টা,True News publish the 24 hours "Online Daily Samobad"

শিরোনাম

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Tuesday, November 20, 2018

ঝালকাঠিতে ভাসমান বেডে সব্জি চাষ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে

খলিলুর রহমান,ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ ঝালকাঠিতে বন্যা সহিষ্ণু ভাসমান বেডে সব্জি ও মশলা চাষ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। জলজ উদ্ভিদ কচুরিপানা দিয়ে তৈরি ভাসমান বেডে বিভিন্ন প্রকার সব্জির ভাল ফলন হওয়ায় লাভের মুখ দেখছেন কৃষকরা। জলাবদ্ধ এবং বন্যা দুর্গত এলাকার কৃষকরা এধরণের ভাসমান বেডে সারা বছর ধরে সবজি চাষ করতে পারে, সেজন্য জেলায় শতাধিক প্রদর্শনী প্লট করে দিয়েছে কৃষি বিভাগ।
অতিবৃষ্টি ও বন্যায় ডুববে না। সেচের প্রয়োজন পড়বে না। কীটনাশক ছিটাতে হবে না। এমনকি  সারেরও প্রয়োজন হবে না। এমন সবজি ক্ষেত এত দিন ছিল কৃষকদের স্বপ্নে। সেই স্বপ্ন এখন বাস্তবে পরিনত করছে কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর। দু-একটি নয়, এমন শতাধিক ভাসমান বেডে বিভিন্ন প্রকার সব্জি ও মশলা আবাদ করেছে ঝালকাঠির কৃষকরা।

ভাসমান এসব বেডে আবাদ হচ্ছে লাল শাক, ঢেরস, লাউ, ফুলকপি, বাধাকপি, মুলাসহ বিভিন্ন প্রকার সব্জি। একই বেডে বছরে কমপক্ষে চার থেকে পাচ বার ফসল চাষ করা যায়, পাশাপাশি মাছ চাষও করা যায়।  এ পদ্ধতিতে চাষাবাদ করে যথেষ্ট লাভ হওয়ার কারনে কৃষকদের মধ্যে আগ্রহও বাড়ছে। সবচেয়ে বড় কথা একই জমিতে মাছ ও ফসল আবাদ সম্ভব হচ্ছে বলে কৃষকরা জানিয়েছেন। ইতোমধ্যে এসব বেডে উৎপাদিত লাল শাক, পালন শাক, ঢেঁরস, ধনিয়া পাতা ও লাউ বিক্রি শুরু করেছেন তারা। এছাড়াও শালগম ও কাঁচা মরিচ চাষও শুরু করেছেন ভাসমান বেডে।
মোঃ ফজলুহ হক উপ-পরিচালক কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর ঝালকাঠি জানান, ঝালকাঠি জেলার প্রায় তিন হেক্টর জমিতে একশটি বেডে এ কার্যক্রম রয়েছে। এছাড়া এ জেলায় আমন ধান দেরিতে ওঠায় বাহির থেকে সবজি আসার কারনেই এই পদ্ধতি অত্যান্ত কার্যকারি। ভাসমান বেডে সবজি ও মাছের পাশাপাশি বিচতলা আবাদ কার্যক্রমে উদ্ভুদ্ধ হচ্ছেন। আমরা কৃষকদের সাড়া বছর আরও উদ্ভুদ্ধ করছি ও প্রশিক্ষন দিচ্ছি।


Post a Comment

Post Bottom Ad

Pages