রাজাপুরে শিক্ষা কর্মকর্তার অবহেলায় ৭শিশু শিক্ষার্থী পরীক্ষা থেকে বঞ্চিত - অনলাইন দৈনিক সমবাদ,সত্য সংবাদ প্রকাশে ২৪ঘন্টা,True News publish the 24 hours "Online Daily Samobad"

শিরোনাম

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Monday, November 19, 2018

রাজাপুরে শিক্ষা কর্মকর্তার অবহেলায় ৭শিশু শিক্ষার্থী পরীক্ষা থেকে বঞ্চিত

ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলা সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ রফিকুল ইসলামের অবহেলায় পূর্ব ছোট কৈবর্তখালী ইসলামিয়া স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসার ৭শিশু শিক্ষার্থী চলমান ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষায় অংশ গ্রহন থেকে বঞ্চিত হয়েছে। এতে তাদের শিক্ষা জীবনে নেমে এসেছে অন্ধকার। মাদ্রাসা শিক্ষকরা অবিভাবকদের তোপের মুখে পড়ে দিশেহারা। পরীক্ষায় অংশ গ্রহন থেকে বঞ্চিত হওয়া শিক্ষার্থীরা হলো খুসভো আক্তার, পপি আক্তার, আসমা আক্তার মিম, শিমা আক্তার, হাবিবা আক্তার, ইমন হাসান নাহিদ ও মোঃ বাদল। অফিস সূত্রে জানাগেছে, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের নির্দেশনা অনুযায়ী উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ন্যায় এ প্রতিষ্ঠানটিও তাদের শিক্ষার্থীদের তালিকা ঐ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তার কাছে জমা দেয়াসহ সর্ব শেষ পরীক্ষার ফি ৬০ টাকা হারে জনপ্রতি জমা দেয় এবং শিক্ষা অফিস তা গ্রহন করেন। মাদ্রাসার সুপার নিয়ম অনুযায়ী পরিক্ষাপূর্ব শিক্ষার্থীদের উপজেলা শিক্ষা অফিস থেকে প্রবেশ পত্র সংগ্রহ করতে আসলে সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা ব্যস্থতা দেখিয়ে বারবার পরে আসতে বলেন। সর্বশেষ পরীক্ষার আগের দিন শনিবার (১৭ নভেম্বর) সন্ধ্যায় প্রতিষ্ঠান প্রধানকে জানিয়ে দেয় ঐ ৭ শিক্ষার্থীর অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হয়নি। যার ফলে এ বছর তারা চলমান ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে পারবে না। এ ব্যাপারে পূর্ব ছোট কৈবর্তখালী ইসলামিয়া স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রসার সুপার মোঃ হাসান মাহমুদ জানান, উপজেলা শিক্ষা অফিসের অবহেলার কারনে আমাদের প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা পরিক্ষায় অংশগ্রহন করতে না পারায় এখন অবিভাবকদের চাপে রয়েছি।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত উপজেলা প্রাথমিক সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ রফিকুল ইসলাম এর কাছে জানতে তার ব্যবহৃত মুঠোফোনে ০১৯১৫৬১৬০০৭ ফোন দিলেও সে রিসিভ করেনি।
এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ আলমগীর জানান, এ ব্যাপারে সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা রফিকুল ইসলামের কোন অবহেলা প্রমানিত হলে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
 উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আফরোজা বেগম পারুল জানান, অভিযোগ প্রমানিত হলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Post a Comment

Post Bottom Ad

Pages