রাজাপুরে সকল নাটকীয় মামলা থেকে মুক্তিপেলো কলেজ ছাত্র আদনান - অনলাইন দৈনিক সমবাদ,সত্য সংবাদ প্রকাশে ২৪ঘন্টা,True News publish the 24 hours "Online Daily Samobad"

শিরোনাম

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Thursday, September 13, 2018

রাজাপুরে সকল নাটকীয় মামলা থেকে মুক্তিপেলো কলেজ ছাত্র আদনান

এম খাইরুল ইসলাম পলাশ,নিজস্ব প্রতিবেদক:অবশেষে রাজাপুর থানার সাবেক ওসি শেখ মুনীর উল গিয়াস ও ওয়ালিউর ইসলাম অলি’র দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা  শেষ হয়ে গেছে। ঝালকাঠির আদালতে ওসি মুনীর ও বাদী অলি’র দায়েরকৃত জিআর নং ১৭৪/১৬ (রাজা) ও জিআর নং ১৩/১৭ (রাজা) দুটি মিথ্যা-বানোয়াট মামলার চার্জ থেকে অব্যহতি প্রদান করেছে। মঙ্গলবার ঝালকাঠি জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোঃ ইখতিয়ারুল ইসলাম মল্লিক সর্বশেষ ফৌ: রিভিশন নং-১৮৭/১৭ (রাজা) ও ফৌ: রিভিশন নং-১৮৯/১৭ (রাজা) মামলার চার্জ খারিজ করে দিয়েছে। এর মাধ্যমে গত দু’বছরের আইনী হয়রানি, পুলিশী নির্যাতনের শিকার, সম্ভ্রান্ত পরিবারের সন্তান ও কলেজ ছাত্র ইমরান হোসেন আদনান সকল মামলা থেকে মুক্ত হয়েছে বলে তার আইনজীবী জানিয়েছে।
     

আদানান ও মুরাদের আইনজীবী জানায়, গত ৭ ডিসেম্বর রাত আনুমানিক ১১ ঘটিকায় রাজাপুর থানার বিতর্কিত সাবেক ওসি মুনির উল গিয়াসের নির্দেশে টিএন্ডটি রোডস্থ বাসা থেকে কলেজ ছাত্র আদনান ও তার ছোট ভাই কামরুল হাসান মুরাদকে সুস্থ-স্বাভাবিক অবস্থায় ডেকে আনে। সেখানে ওসি মুনির ৭ ডিসেম্বর বেলা ১০টা থেকে ১টার মধ্যবর্তী সময়ে স্থানীয় ওলিউর রহমান অলির বাসায় কথিত চুরি ঘটনায় জড়িয়ে আদনানকে স্বীকারোক্তি প্রদানের জন্য চাপ সৃষ্টি করে।

ভুক্তোভোগী পরিবার জানায়, প্রায়  ৪০ বছর সৌদি আরবে চাকুরিরত থাকা মরহুম পিতা মোঃ শাহজাহানের পুত্র কলেজ ছাত্র আদনান তার এ অন্যায় দাবীতে বিস্মিত হয়ে  স্বীকারোক্তি প্রদানে অস্বীকৃতি জানলে তাকে আটকে মধ্যযুগীয় নির্যাতন চালায়। খবর পেয়ে তার ছোটভাই মুরাদ ও মা তাছলিমা বেগম থানায় ছুটে আসলে তাকে ছেড়ে দেয়ার বিনিময়ে ৫ লাখ টাকা দাবী করে অন্যথায় ক্রসফায়ার দেয়ার হুমকি দেয়।
    
এসময় ছেলের প্রান বাচাতে তাছলিমা বেগম সেই রাতে আদনানের বিদেশে যাওয়ার জন্য ব্যাংক থেকে তুলে ঘর রাখা দু’লাখ টাকা ওসি মুনিরকে দিলে মারধর থামায়। পরের দিন ৮ডিসেম্বর অসুস্থ আদনানকে উক্ত অলির দায়েরকৃত চুরি মামলার সন্দিগ্ধ আসামী করে আদালতে প্রেরন করে। পরবর্তীতে তার বিরুদ্ধে উক্ত মামলার চার্জশীট প্রদানসহ বাদী অলির দায়েরকৃত অপর এক ননজিআর মামলায় অন্তর্ভূক্ত করে চার্জশীট প্রদান করে।
   
নাটকীয় মামলা থেকে মুক্তি পাওয়ার পর আদানান ও মুরাদ জানায়, তারা সাবেক ওসি মুনীর, ওসি তদন্ত হারুন এবং চুরি ও ননজিআর মামলার বাদী অলির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেবে। এ বিষয়ে তারা আইনজীবীর সাথে আলাপ করতে দু/এক দিনের মধ্যে ঢাকায় যাবে। যারা গত দুটি বছর আইন ও আদালত নিয়ে খেলা করেছে আর তাদের জীবন অতিষ্ট করে দিয়েছে আইন’ই তাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেবে।
    

আদালতের রায়ের পর আদনান-মুরাদের মা তাসলিমা বেগম সাংবাদিকদের কাছে তার প্রতিক্রিয়ায় জানান,  মিথ্যার পক্ষে যতো শক্তিশালী ব্যক্তিরাই থাকুক যেটা সত্যি তা একদিন প্রমানিত হবেই। আমার ছেলেরা যে কোন অন্যায় অপকর্মে জড়িত নয় বরং ওসি মুনিরের মতো দুএকজন দূর্নীতিবাজ পুলিশী ক্ষমতার অপব্যাবহার করে দুস্কৃতিকারীদের দিয়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করেছে তার সত্যতা প্রমান হয়েছে।
Post a Comment

Post Bottom Ad

Pages