ঝালকাঠী থেকে ৮ম দিনের মতো ৮রুটে বাস চলাচল বন্ধ - অনলাইন দৈনিক সমবাদ,সত্য সংবাদ প্রকাশে ২৪ঘন্টা,True News publish the 24 hours "Online Daily Samobad"

শিরোনাম

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Wednesday, August 08, 2018

ঝালকাঠী থেকে ৮ম দিনের মতো ৮রুটে বাস চলাচল বন্ধ

খলিলুর রহমান,ঝালকাঠি ঃ  বরিশাল বাস মালিক সমিতির সাথে দ্বন্দে ৮ম দিনের মত ঝালকাঠি থেকে সব রুটে বাস চলাচল বন্ধ করে রেখেছে ঝালকাঠির বাস মালিক-শ্রমিকরা। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছে ঝালকাঠি থেকে বরিশাল ও খুলনাগামীসহ ৮রুটের অসংখ্য যাত্রী। দক্ষিনাঞ্চল থেকে বরিশালগামী স্কুল কলেজ বিশ্ব-বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী ও বিভিন্ন অফিসে কর্মরত মানুষরা অসহনীয় দূর্ভোগের মধ্যে পরেছে। ঝালকাঠি থেকে বরিশাল রুপাতলী ও নথুল্লাবাদ যেতে সাধারন যাত্রীদের নির্ধারিত ভাড়া হচ্ছে ২৫ টাকা। ছাত্রদের জন্য হাফ ভাড়া থাকলেও অধিকাংশ বাসের ষ্টাফরা মানতে রাজী নয় এ নিয়ম। অপর দিকে দুর পাল্লার পরিবহনে ১০টাকাই ঝালকাঠি থেকে বরিশালে যেতে পারছে।
কিন্তু ৪র্থ দফায় ৮ম দিনের মত ঝালকাঠি থেকে ৮ রুটে বাস ধর্মঘট অব্যাহত থাকায় ভোগান্তিসহ অতিরিক্ত দ্বিগুন ভাড়া গুনতে হচ্ছে সাথে যাত্রী হয়রানীতো রয়েছেই। রুপাতলী থেকে অটোরিক্সা ও মাহিন্দ্রায় কালিজিরা ১০ টাকা এবং কালিজিরা থেকে ঝালকাঠি ৪০-৫০ টাকা ভাড়া নিচ্ছে। এতে ২৫ টাকার স্থলে ৫০-৬০ টকা যাত্রী প্রতি ভাড়া পরছে।
ঝালকাঠি বাস মালিক সমিতি জানায়, মীমাংসা হওয়ার পরও কুয়াকাটা রুটে ঝালকাঠি সমিতির বাস চলাচল করতে না দেয়ায় ঝালকাঠি থেকে সব রুটে বাস চলাচল বন্ধ করে রাখা হয়েছে। ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে বরিশাল মালিক সমিতি ঝালকাঠির মীমাংসিত দাবী বুঝিয়ে না দেয়ায় নতুন করে এ কর্মসূচি নিতে হয়েছে। ঝালকাঠির মালিক-শ্রমিকদের নিয়ে বৈঠকের পর এ ব্যাপারে পরবর্তী সীদ্ধান্ত নেয়া হবে।
এদিকে ১ আগষ্ট বুধবার দুপুর থেকে ঝালকাঠি মালিক-শ্রমিকরা বাস বন্ধের এ কর্মসূচি শুরু করায় ঝালকাঠি থেকে বরিশাল, খুলনা, পিরোজপুর, বাগেরহাট, মঠবাড়ীয়া-পাথরঘাটাসহ ৮ রুটের অসংখ্য যাত্রীরা চরম বিপাকে পড়েছে।
এ ব্যাপারে ঝালকাঠি জেলা বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতি সাধারণ সম্পাদক মিলন মাহামুদ বাচ্চু জানান, ঝালকাঠি থেকে কুয়াকাটা রুটে বাস চলতে দেয়ার দীর্ঘদিনের দাবী গত ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে মেনে নেয়ার সীদ্ধান্ত হয়েছিল। বরিশাল বিভাগীয় কমিশনারের কর্যালয়ে ঝালকাঠি ও বরিশাল মালিক সমিতি ও দুই জেলার শীর্ষ প্রশাসনের মধ্যস্ততায় গত ২৪ জুন মীমাংশা হয়। কিন্তু সেই মিমাংশা উপেক্ষা করে বরিশাল মালিক সমিতি কুয়াকাটা রুটে ঝালকাঠির বাস চলতে না দেয়ায় সকালে বরিশাল বাসস্ট্যান্ড থেকে নিজেদের বাসগুলোকে ঝালকাঠির শেষ সীমান্তে কালিজিরার অস্থায়ী স্ট্যান্ডে নিয়ে আসে ঝালকাঠি মালিক সমিতি।
তবে ঝালকাঠি জেলা প্রশাসন অস্থায়ী স্ট্যান্ড থেকে বাস চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জানালে সবরুটে বাস চলাচল বন্ধ করে দেয় ঝালকাঠি বাস মালিক সমিতি। এতে সৃষ্টি হয়েছে জনভোগান্তি।
এদিকে এ ব্যাপারে ঝালকাঠি জেলা প্রশাসন সাংবাদিকদের জানায়, অস্থায়ী স্ট্যান্ড এর ব্যপারে আদালতের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তাই ঝালকাঠির বাসগুলোকে বরিশাল ও ঝালকাঠি বাসস্ট্যান্ড থেকে পরিচালনা করতে বলা হয়েছে।
ঝালকাঠী থেকে ৮ম দিনের মতো ৮রুটে বাস চলাচল বন্ধ
খলিলুর রহমান,ঝালকাঠি ঃ  বরিশাল বাস মালিক সমিতির সাথে দ্বন্দে ৮ম দিনের মত ঝালকাঠি থেকে সব রুটে বাস চলাচল বন্ধ করে রেখেছে ঝালকাঠির বাস মালিক-শ্রমিকরা। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছে ঝালকাঠি থেকে বরিশাল ও খুলনাগামীসহ ৮রুটের অসংখ্য যাত্রী। দক্ষিনাঞ্চল থেকে বরিশালগামী স্কুল কলেজ বিশ্ব-বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী ও বিভিন্ন অফিসে কর্মরত মানুষরা অসহনীয় দূর্ভোগের মধ্যে পরেছে। ঝালকাঠি থেকে বরিশাল রুপাতলী ও নথুল্লাবাদ যেতে সাধারন যাত্রীদের নির্ধারিত ভাড়া হচ্ছে ২৫ টাকা। ছাত্রদের জন্য হাফ ভাড়া থাকলেও অধিকাংশ বাসের ষ্টাফরা মানতে রাজী নয় এ নিয়ম। অপর দিকে দুর পাল্লার পরিবহনে ১০টাকাই ঝালকাঠি থেকে বরিশালে যেতে পারছে।
কিন্তু ৪র্থ দফায় ৮ম দিনের মত ঝালকাঠি থেকে ৮ রুটে বাস ধর্মঘট অব্যাহত থাকায় ভোগান্তিসহ অতিরিক্ত দ্বিগুন ভাড়া গুনতে হচ্ছে সাথে যাত্রী হয়রানীতো রয়েছেই। রুপাতলী থেকে অটোরিক্সা ও মাহিন্দ্রায় কালিজিরা ১০ টাকা এবং কালিজিরা থেকে ঝালকাঠি ৪০-৫০ টাকা ভাড়া নিচ্ছে। এতে ২৫ টাকার স্থলে ৫০-৬০ টকা যাত্রী প্রতি ভাড়া পরছে।
ঝালকাঠি বাস মালিক সমিতি জানায়, মীমাংসা হওয়ার পরও কুয়াকাটা রুটে ঝালকাঠি সমিতির বাস চলাচল করতে না দেয়ায় ঝালকাঠি থেকে সব রুটে বাস চলাচল বন্ধ করে রাখা হয়েছে। ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে বরিশাল মালিক সমিতি ঝালকাঠির মীমাংসিত দাবী বুঝিয়ে না দেয়ায় নতুন করে এ কর্মসূচি নিতে হয়েছে। ঝালকাঠির মালিক-শ্রমিকদের নিয়ে বৈঠকের পর এ ব্যাপারে পরবর্তী সীদ্ধান্ত নেয়া হবে।
এদিকে ১ আগষ্ট বুধবার দুপুর থেকে ঝালকাঠি মালিক-শ্রমিকরা বাস বন্ধের এ কর্মসূচি শুরু করায় ঝালকাঠি থেকে বরিশাল, খুলনা, পিরোজপুর, বাগেরহাট, মঠবাড়ীয়া-পাথরঘাটাসহ ৮ রুটের অসংখ্য যাত্রীরা চরম বিপাকে পড়েছে।
এ ব্যাপারে ঝালকাঠি জেলা বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতি সাধারণ সম্পাদক মিলন মাহামুদ বাচ্চু জানান, ঝালকাঠি থেকে কুয়াকাটা রুটে বাস চলতে দেয়ার দীর্ঘদিনের দাবী গত ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে মেনে নেয়ার সীদ্ধান্ত হয়েছিল। বরিশাল বিভাগীয় কমিশনারের কর্যালয়ে ঝালকাঠি ও বরিশাল মালিক সমিতি ও দুই জেলার শীর্ষ প্রশাসনের মধ্যস্ততায় গত ২৪ জুন মীমাংশা হয়। কিন্তু সেই মিমাংশা উপেক্ষা করে বরিশাল মালিক সমিতি কুয়াকাটা রুটে ঝালকাঠির বাস চলতে না দেয়ায় সকালে বরিশাল বাসস্ট্যান্ড থেকে নিজেদের বাসগুলোকে ঝালকাঠির শেষ সীমান্তে কালিজিরার অস্থায়ী স্ট্যান্ডে নিয়ে আসে ঝালকাঠি মালিক সমিতি।
তবে ঝালকাঠি জেলা প্রশাসন অস্থায়ী স্ট্যান্ড থেকে বাস চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জানালে সবরুটে বাস চলাচল বন্ধ করে দেয় ঝালকাঠি বাস মালিক সমিতি। এতে সৃষ্টি হয়েছে জনভোগান্তি।
এদিকে এ ব্যাপারে ঝালকাঠি জেলা প্রশাসন সাংবাদিকদের জানায়, অস্থায়ী স্ট্যান্ড এর ব্যপারে আদালতের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তাই ঝালকাঠির বাসগুলোকে বরিশাল ও ঝালকাঠি বাসস্ট্যান্ড থেকে পরিচালনা করতে বলা হয়েছে।

Post a Comment

Post Bottom Ad

Pages