ঝালকাঠী -১ আসনে চলছে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের প্রচারণা - অনলাইন দৈনিক সমবাদ,সত্য সংবাদ প্রকাশে ২৪ঘন্টা,True News publish the 24 hours "Online Daily Samobad"

শিরোনাম

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Wednesday, August 01, 2018

ঝালকাঠী -১ আসনে চলছে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের প্রচারণা

ঝালকাঠী -১ আসনে চলছে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের প্রচারণা

www.samobad.com :: সমবাদ ডট কম ॥ মিজানপনা, রাজাপুর থেকেঃ ঝালকাঠি জেলার মূল  রাজনৈতিক কার্যক্রম আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টিকে কেন্দ্র করে আবর্তিত। জেলায়  (১২৫ ও ১২৬) সংসদীয় আসনেই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আগের চেয়ে অনেক শক্তিশালী । আগামী সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ইতোমধ্যে বড় দুই দলের সম্ভাব্য প্রার্থীরা নির্বাচনী মাঠে গণসংযোগ শুরু করেছেন পুরোদমে।আবার উভয় দলের জন্য বর্তমানে বড় সমস্যা হচ্ছে অভ্যন্তরীণ কোন্দল । 
 
আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতা শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুকে ঘিরেই ঝালকাঠির নেতা-কর্মীরা বড় শক্তি ।দুটি আসনে উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়নের মাধ্যমে যেমন আ.লীগ ধরে রাখার চেষ্টা করছে তেমনই আসন দুটি উদ্ধারের চেষ্টায় মাঠে নেমেছে বিএনপি। 
আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ঝালকাঠি -১ আসনে রাস্তা ঘাটে চায়ের দোকানে বয়েছে  নির্বাচনী প্রচারণা । সরকার ও বড় রাজনৈতিক দলের মনোনয়ন পেতে চেস্টা শুরু করেছে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা । নামীদ্ধামী সিনিয়র প্রার্থীদের পাশাপাশি তরুণ পার্থীরাও আলোচনায় রয়েছে ব্যপক শুনাম ।
জাতীয় পার্টি (জেপি-মঞ্জু) চেয়ারম্যান বন ও পরিবেশ মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর ঝালকাঠি-১ এ ভালো অবস্থান আছে।
ঝালকাঠি-২ (ঝালকাঠী সদর-নলছিটি) আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য আওয়ামী লীগের সিনিয়র প্রার্থী দলের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ও শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু । আগামীতেও এ আসনে তার মনোনয়ন নিশ্চিত বলে দ্ধাবী আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীদের । এখানে দলের আর কোনো প্রার্থী তার সামনে মাথা উচু করে দাঁড়াবার মত নেই ।  তিনি এ আসন থেকে কয়েকবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। এখানে আমির হোসেন আমুর কোনো বিকল্প নেই বলে মনে করে নেতাকর্মীরা। ঝালকাঠি ও নলছিটিতে ব্যাপক উন্নয়ন করে শুধু নেতাকর্মীদের মধ্যেই নয়, জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন সাধারণ মানুষের মধ্যেও। এ আসনের মানুষ চায় তাঁদের এলাকার কেউ মন্ত্রী থাকুক। সে বিবেচনায় তাঁরা আমির হোসেন আমুকেই আগামী নির্বাচনে জয়ী করে পুনরায় মন্ত্রী হিসেবে তাকেই পেতে চান। 
ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঁঠালিয়া) আসনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রধান দুই প্রার্থী নিয়েই নানা সমালোচনা রয়েছে। এ আসনের বর্তমান এমপি বজলুল হক হারুন (বিএইচ হারুন) সম্প্রতি বহু বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন। আওয়ামী লীগের মনোনয়নে আলোচনার শীর্ষে রয়েছেন বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের চেয়ারম্যান সাবেক অতিরিক্ত সচিব মু. ইসমাইল হোসেন এবং মনিরুজ্জামান মনির এ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী, ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খান সাইফুল্লাহ পনির মনোনয়ন প্রত্যাশী। এছাড়াও পিরোজপুরের পাশাপাশি এ আসনে আগামীতেও নির্বাচন করতে চান জাতীয় পার্টি (জেপি-মঞ্জু) চেয়ারম্যান বন ও পরিবেশমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু। এক সময়ের জাতীয় পার্টির দখলে থাকা ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঁঠালিয়া) আসনে বর্তমানে জাতীয় পার্টির অবস্থান অনেকটা দুর্বল। তৎকালিন জাতীয় পার্টির মহাসচিব একাধিকবারের যোগাযোগ মন্ত্রী জাতীয় পার্টি (জেপি-মঞ্জু) চেয়ারম্যান বন ও পরিবেশ মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু এ আসনে নির্বাচিত হওয়ার পর এ অঞ্চলের ব্যাপক উন্নয়ন হওয়ায় জনপ্রিয়তা ছিল তুঙ্গে।  পাওয়া না পাওয়ার বেদনায় জাতীয় পার্টি ক্ষমতা হারানোর পর অনেক বাঘা নেতারা আওয়ামী লীগ ও বিএনপিতে যোগ দিয়েছেন।
গ্রামাঞ্চলের উন্নয়নের রূপকার হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদের জাতীয় পার্টির সমর্থক-ভোটার থাকলেও যোগ্য নেতৃত্বের অভাবে গোলায় ফসল তুলতে পারছে না জাতীয় পার্টি।
ধর্ম মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ঝালকাঠি-১ আসনের সংসদ সদস্য বিএইচ হারুন ইতোমধ্যে বিভিন্ন সভা-সমাবেশে আগামী নির্বাচনের জন্য নৌকায় ভোট প্রার্থনা করছেন পুরোদমে। আলীগের উন্নয়ন ও গুনগান প্রচারে কাজ শুরু করেছে দলের নেতাকর্মীরাও । আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে ঐক্য গড়ার চেষ্টা করলেও মনোনয়ন প্রত্যাশীরা বিরোধ জিইয়ে রাখছেন বলে জানা গেছে। অপরদিকে জোটবদ্ধ নির্বাচন হলে ছন্নছাড়া জাতীয় পার্টি আওয়ামী লীগের সরিক হয়ে মাঠে থাকবে। আর জোট ছাড়া নির্বাচনে শক্ত প্রার্থীর সংকটে ভুগতে হবে দলটিকে। ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঁঠালিয়া) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে টানা দুই দফায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন নিজের কেন্দ্রে ও স্থানীয় পর্যায় শক্ত অবস্থান তৈরি করে নিয়েছেন ধর্ম মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি বর্তমান এমপি রাজাপুর উপজেলা আলীগের সভাপতি বজলুল হক হারুন।দুই উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, দলীয় সিনিয়র ও তৃণমূল নেতাকর্মীদের মধ্যে তাঁর জনপ্রিয়তা বেড়ে গেছে বলে মনে করেন তিনি ।  র্দীঘদিনের মনোনয়ন প্রত্যাশী কেন্দ্র্রীয় আলীগের উপ কমিটির সাবেক সহ সম্পাদক গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব মো. মনিরুজ্জামান মনিরও এলাকায় জনপ্রিয়তা অর্জনের জন্য গণসংযোগ, সভা, সমাবেশ, অনুদান প্রদান করছেন। পাশাপাশি টেলিভিশনে টকশোর কারনে কেন্দ্রসহ বিভিন্ন মহলে বেশ ভাল একটা অবস্থানও তৈরি করেছেন । 
বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী যারা: ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঁঠালিয়া) আসনে বিএনপির নিশ্চিত প্রার্থী হিসেবে শক্ত অবস্থানে রয়েছেন হেভিওয়েট নেতা দলের ভাইস চেয়ারম্যান সাবেক আইন প্রতিমন্ত্রী ব্যরিষ্টার শাহ জাহান ওমর বীরউত্তম। তার নেতৃত্বে দলীয় বিরোধহীন সাংগঠনিকভাবেও শক্তিশালী দলটি। তবে এ আসনে  বিএনপির প্রার্থীর সঙ্গে আ.লীগ প্রার্থীদের লড়াই হবে সমানে সমান। আ.লীগের অবস্থান সুদৃঢ় হলেও আগামী নির্বাচনে এ আসনে বরাবরের মতোই আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সঙ্গে বিএনপির প্রার্থীর মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে এমন আবাস পাওয়া গেছে। 
ঝালকাঠি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সরদার মো. শাহ আলম বলেন, ‘নির্বাচনকে সামনে রেখে দলের ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড কমিটিগুলো নতুন করে হাল নাগাদ করা হচ্ছে। লীগক আরো গতিশীল রাখার জন্য প্রতিটি ইউনিয়নেই আমরা নেতা কর্মীদের দিকে খেয়াল রাখছি। তিনি আরো বলেন দিন মজুর থেকে শুরু করে উচ্চবিত্ত সবাই শিল্পমন্ত্রীর হাত ধরে আওয়ামী লীগের সঙ্গে রয়েছেন। আগামী নির্বাচনে ঝালকাঠি-২ নিশ্চিত ভাবে ধরে রাখতে পারবো এবং ঝালকাঠি-১ নিয়েও আশাবাদী আমরা ধরে রাখতে পারবো। 


Post a Comment

Post Bottom Ad

Pages