জেলা নেতৃবৃন্দকে লাঞ্চিত করে নির্বাচন পন্ড করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্বেলন। - অনলাইন দৈনিক সমবাদ,সত্য সংবাদ প্রকাশে ২৪ঘন্টা,True News publish the 24 hours "Online Daily Samobad"

শিরোনাম

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Sunday, February 25, 2018

জেলা নেতৃবৃন্দকে লাঞ্চিত করে নির্বাচন পন্ড করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্বেলন।



এম খাইরুল ইসলাম পলাশ : ঝালকাঠির রাজাপুরে ২৫শে ফেব্রæয়ারি রবিবার সকাল ১১.০০ ঘটিকায় রাজাপুর রিপোর্টার্স ইউনিটিতে রাজাপুর বন্দর দুর্গাপুজা কমিটির সভাপতি চিত্ত রঞ্জন মজুমদার,সাধারণ সম্পাদক গৌরাঙ্গ লাল সাহা,শ্রী শ্রী কেন্দ্রীয় দূর্গা মন্দির মহা শ্মশান ঘাট মহা শ্মশান কালি মন্দিরের সভাপতি হিমাংশু শেখর দাস,সাধারণ সম্পাদক রবিন দেবনাথ হিন্দু,বৌদ্ধ,খ্রিষ্টান বাংলাদেশ পূজা উৎযাপন পরিষদের ত্রিবার্ষিক সম্বেলনের নির্বাচন কার্য পরিচলার সময় জেলা নেতৃবৃন্দকে লাঞ্চিত করে নির্বাচন পন্ড করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্বেলন করেছেন।তারা তাদের অভিযোগে বলেন,২৩ ফেব্রæয়ারি বিকাল ঘটিকায় বাংলাদেশ হিন্দু,বৌদ্ধ,খ্রিষ্টান বাংলাদেশ পূজা উৎযাপন পরিষদের ত্রিবার্ষিক সম্বেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্বেলনে ঝালকাঠি - আসনের  মাননীয় সংসদ সদস্য ধর্ম মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি জনাব বজলুল হক হারুন প্রধান অতিথির আসন অলংকৃত করেছেন।সেই সাথে অনন্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।প্রোগ্রাম অনুযায়ী অনুষ্ঠানের প্রথম অধিবেশন সমাপ্তি করে এম পি সাহেব ঝালকাঠি থেকে আগত জেলা হিন্দু নেতৃবৃন্দকে নির্বাচন কার্য সুষ্ঠভাবে সম্পান্ন করার জন্য বলেন।বিশেষ করে জেলা পুজা উৎযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ঝালকাঠি জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক এবং ঝালকাঠি পৌর কমিশনার তরুন কুমার কর্মকার এর উপর নির্বাচন কার্য পরিচলনার দায়িত্ব অর্পন করে যান।
এরই ধারাবাহিকতায় তরুন কুমার কর্মকার প্রথমে সভাপতি পদে গৌরাঙ্গ লাল সাহার পক্ষে সভাপতি হিসেবে হাত তুলে সমর্থনের আহবান করিলে বিপুল সংখ্যক উপস্থিতি ভক্তবৃন্দ সমর্থন জ্ঞাপন করেন।এরই মধ্যে সাবেক ভাইসচেয়ারম্যান চন্দ্রশেখর হালদার তরুন কর্মকারের হাত থেকে মাউথস্পিকার ছিনাইয়া নিয়ে অপর প্রার্থী জয়রাম তেওয়ারীর নাম নির্বাচিত বলে ঘোষনা করেন এবং তার সন্ত্রাসীদের দিয়ে মন্দিরের গেট বন্ধ করে দেন এবং নির্বাচন পন্ড করে দেন।  তারা জেলা থেকে আগত অতিথি বৃন্দকে লাঞ্চিত অপমানিত করেন।এ অবস্থায় ধর্মপ্রান ভক্তবৃন্দ চিৎকার করে প্রান রক্ষার জন্য বিভিন্ন দিক থেকে বের হয়ে যান।পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী চন্দ্রশেখর হালদার তার সন্ত্রাসী বাহিনীর দ্বারা নির্বাচন কার্যত্রæ পন্ড করে অতিথি বৃন্দ ভক্তবৃন্দকে লাঞ্চিত করিয়াছে।আমরা সংবাদ সম্বেলনের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আসু হস্তক্ষেপ কামনা করি এবং চন্দ্রশেখর হালদার এবং তার সন্ত্রাসী বাহিনীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিরদাবী করি সেই সাথে চন্দ্রশেখর হালদারকে ঝালকাঠি জেলা হিন্দু,বৌদ্ধ,খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সকল দায়িত্ব থেকে অপসারন করার দাবী জানাচ্ছি।
Post a Comment

Post Bottom Ad

Pages