চাঁদাদাবী করে মারধর ও টাকা ছিনতাইয়ের প্রতিবাদে সংবাদ সম্বেলন। - অনলাইন দৈনিক সমবাদ,সত্য সংবাদ প্রকাশে ২৪ঘন্টা,True News publish the 24 hours "Online Daily Samobad"

শিরোনাম

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Monday, February 19, 2018

চাঁদাদাবী করে মারধর ও টাকা ছিনতাইয়ের প্রতিবাদে সংবাদ সম্বেলন।


এম খাইরুল ইসলাম পলাশ:ঝালকাঠির রাজাপুর রিপোর্টার্স ইউনিটিতে চাঁদাদাবী করে মারধর টাকা ছিনতাইয়ের প্রতিবাদে সংবাদ সম্বেলন ভুক্তোভোগী পরিবার।১৯ ফেব্রæয়ারি সোমবার সকাল ১০ ঘটিকায় ভুক্তোভোগী মনোহরপুর এলাকার মো:মৌজে আলী খান পুত্র মো:জালাল এবং কাউখালি উপজেলার জিবসা গ্রামের মৃত্য :আব্দুল খালেক হাওলাদারের পুত্র মো:শহিদুল ইসলাম এর পক্ষে তার স্ত্রী মোসা:তামান্না বেগম রাজাপুর রিপোর্টার্স ইউনিটিতে  উপস্থিত হয়ে তাদের অভিযোগ লিখিত বক্তাব্যে পাঠ করেন। মো:শহিদুল ইসলাম স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি থাকায়  তার পক্ষে তার স্ত্রী মোসা:তামান্না বেগম বলেন,আমার  স্বামী রাজাপুর উপজেলার পাড় গোপালপুর গ্রামের ইসহাকবাদ হোসাইনিয়া  আলিম মাদ্রাসার একজন সহকারী মৌলাভী। আমি দীর্ঘ বছর যাবৎ উক্ত মাদ্রাসায় চাকুরী করে আসেতেছি। সেই সুবাদে একই এলাকার :সামাদ মৃর্ধার পুত্র মো:সাইদুল ইসলাম মৃর্ধা(৩৩) সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ তার বিভিন্ন বিষয়ে বিরোধ চলিয়া আসিতেছে। এরই ধারাবাহিকতায় মো:শহিদুল ইসলাম ইংরেজী ১৮,০২,২০১৮তাং বিকাল আনুমানিক .৩০ ঘটিকায় রাজাপুর থেকে বাইসাইকেল যোগে মাদ্রাসার ভাইস অধ্যক্ষ মাওলানা মোস্তাফিজুর রহমান সাহেবের বেতনের টাকা তুলিয়া তাহাকে পৌছাবার জন্য মনোহরপুর গ্রাম এর মতিলাল সিকদাররের বাড়ীর সামনে ব্রীজের উপর আসা মাত্রই পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ি প্রতিপক্ষ সাইদুল ইসলাম হাতে লাঠি নিয়ে আমার গতিরোধ করে।কিছু বুঝে উঠার আগেই এলো পাতারী ভাবে পিটাইয়া তার সমস্ত শরীরে ফুলা যখম করে। এক পর্যায়ে আমি রাস্তায় পড়িয়া গেলে সাইদুল ইসলাম আমার পকেটে থাকা ৪২ হাজার ৭০০ টাকা আমার ব্যাবহারিত মোবাইল ফোন সেট যাহার সিম নং:০১৯৩৭-০৫৬৫৮১ ছিনিয়ে নিয়ে প্রতিপক্ষ তাকে খুন যখমের হুমকি দিয়ে চলে যায়। ঘঠনায় আমরা রাজাপুর থানায় অভিযোগ করেছি।
মো:জালাল তার অভিযোগে বলেন, আমি রাজাপুর উপজেলার পাড় গোপালপুর গ্রামের ইসহাকবাদ হোসাইনিয়া  আলিম মাদ্রাসার নৈশ-প্রহরী।উক্ত মাদ্রাসার সম্মুক্ষে আমার একটি দোকান আছে।একই এলাকার :সামাদ মৃর্ধার পুত্র মো:সাইদুল ইসলাম মৃর্ধা(৩৩)  দীর্ঘদিন যাবৎ আমার মাধ্যমে অত্র মাদ্রাসার অধ্যক্ষের নিকট লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করিযা আসিতেছে।আমি বিষযটি অধ্যক্ষকে অবহিত করিলে অধ্যক্ষ মহদ্বয় অত্র মাদ্রাসার গভর্ণিং বডির সভাপতি রাজাপুর সদর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মো:আনোয়ার হোসেন মৃর্ধা মজিবর সহ গভর্ণিং বডির সকল সদস্যকে অবহিত করেন।সভাপতি মহাদ্বয় কোন প্রকার চাঁদা দিতে সম্পূর্ন নিষেধ করেন।পরবর্তিতে পতিপক্ষরা পূনরায় আমার দোকানে এসে চাঁদার টাকার কথা জানতে চাইলে আমি অধ্যক্ষের মাতামত জানিযে দেই।এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মো:সাইদুল ইসলাম মৃধা আমার দোকানে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ফেলা সহ অধ্যক্ষের প্রান নাশের হুমকি প্রদান করেন।এরই ধারাবাহিকতায় ইংরেজী ০৬,০২,২০১৮তাং আমার দোকানের মালামাল কেনার জন্য রাজাপুরে রওনা হয়ে বিশ্বাস বাড়ী ব্রীজের গোড়ায় আসলে আনুমানিক দুপুর ১২.৩০ ঘটিকার সময় পূর্বপরিকল্পিত ভাবে ওৎ পেতে থাকা পতিপক্ষমো:সাইদুল ইসলাম মৃর্ধা সহ অজ্ঞাত - জন আমার পথরোধ করে এবং কিছু বুঝে ওঠার আগেই আমাকে কিল;ঘুষি শুরু করে।আমি আহত হয়ে মাটিতে পড়ে গেলে আমার সাথে থাকা দোকানের মালামাল  ত্রæয়ের ৪৮ হাজার ৩৫২ টাকা লুঙ্গির কোচকা থেকে মাটিতে পড়ে যায়।প্রতিপক্ষ তার সাথে থাকা লোকজন আমাকে হত্যা করার জন্য রাস্তায় পড়ে থাকা ইট দিয়ে আমার পিঠে আঘাত করে।এমতঅবস্থায় আমার ডাক চিৎকার শুনে স্থানীয় লোক জন আমাকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে আসে।এ ব্যাপারে রাজাপুর থানায় আমি অভিযোগ করেছি।
আমরা ভুক্তোভোগী পরিবার এখন নিরাপত্তা হিনতায় ভুগতেছি।আমরা মো:সাইদুল ইসলাম মৃর্ধার হাত থেকে বাচঁতে চাই। 
Post a Comment

Post Bottom Ad

Pages