রাজাপুরে বিদ্যালয়ের সভাপতি ও শিক্ষক এর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও হয়রানীর প্রতিবাদে মানববন্ধন । - অনলাইন দৈনিক সমবাদ,সত্য সংবাদ প্রকাশে ২৪ঘন্টা,True News publish the 24 hours "Online Daily Samobad"

শিরোনাম

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Tuesday, August 01, 2017

রাজাপুরে বিদ্যালয়ের সভাপতি ও শিক্ষক এর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও হয়রানীর প্রতিবাদে মানববন্ধন ।



এম খাইরুল ইসলাম পলাশ: ঝালকাঠির রাজাপুরে বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব প্রতিবন্ধি বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি মো:মিরাজ খাঁন এর করা মিথ্যা মামলা হয়রানীর প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছেন ।বিদ্যালয়ের শিক্ষক,শিক্ষার্থী অবিভাবকরা মানববন্ধনে অংশনেয়। ০১ লা আগাষ্ট মঙ্গলবার দুপুর ১১ টায় বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়

বর্তমান সভাপতি মো:জুলফিকার আলী তার বক্তাব্যে বলেন , মো:মিরাজ খাঁন বিদ্যালয় নির্মানের সময় বিভিন্ন কাগজপত্র সংগ্রহের অযুুহাতে আমার কাছ থেকে সাড়ে লাখ টাকা নিয়েছে টাকা নেয়ার অনেক দিন অতিবাহিত হওয়ার পড়ে কাগজপত্রের চাপ দিলে সে আমাকে বিদ্যালয়ের নামে  ভুয়া কাগজ পত্র দেয় এবং তা প্রামানিত হয় এবং আমি ওই কাগজপত্র নিয়ে যখন ডিডি অফিসে যাই তখন অফিসার আমাকে বলেন  জাল কাগজের জন্য আমি  আপনার বিরুদ্ধে আইনানুক ব্যবস্থা নিতে পারি ।একথা মিরাজকে আমি বলার পড়ে সে এখান থেকে কেঁটে পড়ে ।কিছুদিন পড়ে সে  নতুন করে একই নাম ব্যাবহার করে আরেকটি প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠিত করেন। ২০১৬ এর মধ্য জুন-জুলাই থেকে সরকার আমাদেরকে পাঠ্য বই ,সৌর বিদুৎ সহ সকল প্রকার সুবিধা এই বিদ্যালয়ে দিচ্ছে   সে কিছুদিন আগে আমার নামে থানায় সাধারন ডাইরি করেছেন সেখানে অভিযোগ করেছে আমি নাকি .৩০ ঘটিকায় তার বিদ্যালয়ে গিয়ে সাইনবোর্ড ভেঙ্গে ফেলেছি এবং তাদের কে হুমকি দিয়েছি ।এর আগেও আমার নামে থানায় সাধারন ডায়রি করেছেন  এবং সকল দপ্তরে আমার  নামে অভিযোগ করেছে সাবেক সভাপতি মিরাজ খাঁন আমাকে সে নানা ভাবে হয়রানী করছে ।আমি মিরাজ খানের মিথ্যা মামলা হয়রানী থেকে বাঁচতে চাই।

ভুক্তভোগী শিক্ষক আল-আমীন তার বক্তাব্যে বলেন: মিরাজ খাঁন বেগম ফজিলাতুনেন্নছা মুজিব প্রতিবন্ধি বিদ্যালয়ে নিয়োগে দেয়ার কথা বলে আমার কাছ থেকে লাখ ৫০ হাজার টাকা নেয়।ওই টাকা ফেরৎ চাইলে সে আমাকে মিথ্যা মামলা সহ নানা ভাবে হয়রানী করছে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মোসা : সেলিনা আক্তার তার বক্তাব্যে বলেন, সাবেক সভাপতি মো:মিরাজ খাঁন সাবেক শিক্ষক মো: আল আমীন আমাদের বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরিবার কে ভুল বুঝিয়ে এবং তারা শিক্ষার্থীদের পরিবারকে  কে বলেন  আমাদের এই বিদ্যালয়ের চাইতে একটি ভাল প্রতিষ্ঠান আছে ওদের কে ( শিক্ষার্থীদের ) সেখানে ভর্তি করে দিবেন তাছাড়াও বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে শিক্ষার্থীদের অন্য বিদ্যালয়ে  নিয়ে যাওয়ার পায়তারা করছে

অভিযুক্ত মিরাজ খাঁনের কাছে বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি সকল অভিযোগ অস্বিকার করে বলেন ,আঙ্গারিয়ায় বেগম ফজিলাতুনেন্নছা মুজিব প্রতিবন্ধি বিদ্যালয় আমার প্রতিষ্ঠিত। মো:জুলফিকার আলী বিদ্যালয়ের সভাপতি পদ দাবি করে এবং অনিয়ম শুরু করে তখন আমি ওই বিদ্যালয় থেকে সড়ে আসি পড়ে আমি নতুন ভবন নির্মান করে বিদ্যালয়ের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি কিন্তু  মো:জুলফিকার আলী আমাকে নানা ভাবে হুমকি দিচ্ছে এবং সে আমার প্রতিষ্ঠানে তার দলবল নিয়ে এসে ভাংচুর করে ।ওই ঘটনার বিচার দাবি করে আমি থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি
Post a Comment

Post Bottom Ad

Pages