সাদুল্লাপুরে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট সেন্টার পুড়ানো ও ব্যালট পেপার ছিনতাই মামলার আসামীরা প্রকাশ্যে ঘুরছে - অনলাইন দৈনিক সমবাদ,সত্য সংবাদ প্রকাশে ২৪ঘন্টা,True News publish the 24 hours "Online Daily Samobad"

শিরোনাম

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Thursday, August 06, 2015

সাদুল্লাপুরে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট সেন্টার পুড়ানো ও ব্যালট পেপার ছিনতাই মামলার আসামীরা প্রকাশ্যে ঘুরছে

www.samobad.com :: অনলাইন, দৈনিক সমবাদ,প্রতিনিধিঃ ॥ গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর-পলাশবাড়ী -৩ আসনের বিগত ৫ জানুয়ারী ২০১৪ইং তারিখে অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জামাত শিবিরের সন্ত্রাসী ক্যাডারা ভোটের সেন্টারে অগ্নিকান্ড ব্যালট পেপার ছিনতাই নানা অপকর্মের আসামীরা দিবালোকে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়েচ্ছে। আসামী গ্রেফতারের নেই কোন তৎপরতা । মামলা সুত্রে জানা যায়,  সাদুল্লাপুর থানার মামলা নং ০৫ তারিখ ০৭.০১.২০১৫ইং ধারা ১৮৬/১৪৭/১৪৮/৪৪৭/৪৪৮/৩৩২/৩৫৩/৫০৬। ৩৪ দন্ড বিধি বিস্ফোরক আইন ১৯০৮ এর৩/৩-ক  এবং গণ প্রতিনিধিত্ব আইন ১৯৭২ এর ৮১(১) রুজু করা হয়েছে। সাদুল্লাপুর উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের ২নং রসুলপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ১০/১২টি ককটেল বিস্ফোরন করিলে ভোটারসহ সাধারন লোকজন এলোপাথারী ছোটাছুটি করলে প্রিজাইডিং অফিসারকে জিম্মি করে এসব জামাত শিবিরের ক্যাডার বাহিনীরা। ব্যালেট পেপার ছিনিয়ে নিয়ে পুড়িয়ে দেয় এবং দেশীয় অস্ত্রর ভয় দেখিয়ে প্রিজাইডিং অফিসারসহ নির্বাচনের কাজে নিয়োজিত সকল কর্মচারীদের বের করে দিয়ে হুমকী প্রদর্শন করে আসে। এদের বিরুদ্ধে থানায় যথারীতি মামলা থাকলেও কোন ইশারায় এসব মামলা থমকে আছে তা ভাবার বিষয় হয়ে দাড়িয়েছে সচেতন মহলের। এ ব্যাপারে উক্ত মামলার আসামী রসুলপুর উচ্চ বিদ্যালয় শিক্ষক মোঃ মাহবুবার রহমানের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, জর্জ সাহেব এ মামলায়টি আমলে নেয়নি জন্য আমরা প্রকাশ্যে ঘুড়ে বেড়াচ্ছি। সাদুল্লাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহারিয়া খাঁন বিপ্লব বলেন, অপরাধীরা প্রকাশ্যে সমাজে ঘুরলে আরো অপরাধ সংগঠিত করবে তাদের বিরুদ্ধে যেহেতু থানা থেকে চার্জশীট দেয়া হয়েছে দ্রুত আসামী গ্রেফতার করে আইনে আওতায় নেয়া জরুরী। সাদুল্লাপুর থানার অফিসার্স ইনচার্জ ফরহাদ ইমরুল কায়েসের সঙ্গে আলাপকালে তিনি জানান, আসামীদের বিরুদ্ধে কোর্টের  গ্রেফতারী পরোয়ানা না পাওয়ায় আসামী ধরা যাচ্ছেনা।



গাইবান্ধা প্রতিনিধি
সজল কুমার মহন্ত
Post a Comment

Post Bottom Ad

Pages