এ.কে.এম.এ আউয়াল এমপির বিরুদ্ধে সংখ্যালঘুদের সম্পত্তি দখলের মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদে কাউখালীতে মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন - অনলাইন দৈনিক সমবাদ,সত্য সংবাদ প্রকাশে ২৪ঘন্টা,True News publish the 24 hours "Online Daily Samobad"

শিরোনাম

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Monday, August 10, 2015

এ.কে.এম.এ আউয়াল এমপির বিরুদ্ধে সংখ্যালঘুদের সম্পত্তি দখলের মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদে কাউখালীতে মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন

www.samobad.com :: অনলাইন, দৈনিক সমবাদ,প্রতিনিধিঃ ॥ পিরোজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ও ধর্ম মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য এবং জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এ.কে.এম.এ আউয়াল এর বিরুদ্ধে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ কর্তৃক সংবাদ সম্মেলনে আনীত  সংখ্যালঘুদের সম্পত্তি দখলের মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত অভিযোগের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে কাউখালী উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদ ও হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ। রবিবার বিকালে কাউখালী থানা সংলগ্ন মুজিব চত্বরে ঘন্টাব্যাপী অনুষ্ঠিত এ মানববন্ধনে হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রায় অর্ধ সহ¯্রাধিক লোক অংশ নেন। এ মানববন্ধনে কাউখালীর বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন। মানববন্ধন শেষে পূজা উদযাপন পরিষদ ও হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ এর নেতৃবৃন্দ স্থানীয় প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি এডভোকেট চন্দ্র শেখর দে’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক উপাধ্যক্ষ সঞ্জিত কুমার সাহা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সংখ্যালঘু অধিকার সুরক্ষা ফোরামের আহবায়ক সুব্রত রায়, শ্রী গুরু সংঘ কেন্দ্রীয় আশ্রমের সভাপতি শ্রীমৎ স্বামী জগন্নাথানন্দ সরস্বতী, উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি এডভোকেট পরিতোষ সমদ্দার, সাধারণ সম্পাদক জোতির্ময় চক্রবর্ত্তী রতন, পূজা উদযাপন পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক লিটন কৃষ্ণ কর, মদন মোহন জিউ আখড়াবাড়ী কমিটির সাধারণ সম্পাদক শংকর লাল বসু, যুগ্ম সম্পাদক চন্দন কুমার দে, অবধূত আশ্রমের সভাপতি পরিতোষ কর্মকার, মতুয়া আশ্রমের সভাপতি সুশীল চন্দ্র হাওলাদার, ইউপি চেয়ারম্যান কৃষ্ণ লাল গুহ, ইউপি সদস্য নেপাল চন্দ্র দে, উপজেলা মহ্শ্মাশ্বান কমিটির সভাপতি দয়াল কর্মকার, পূজা উদযাপন পরিষদের নেতা সুনীল চন্দ্র কুন্ডু, সুনন্দা সমদ্দার, গৌতম কুমার দাস, অলোক কর্মকার, নিমাই মন্ডল, পল্টু বসু, মানিক কর, বিশ্বজিৎ পাল, প্রদীপ কিশোর হালদার, বিপ্লব কর্মকার ও সুজন আইচ প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয় এম.পি আউয়াল অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী একজন সফল রাজনীতিক। তিনি একদিকে বীর মুক্তিযোদ্ধা অন্যদিকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের উত্তরসূরী এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার আস্থাভাজন একজন জনপ্রিয় নেতা। তার নেতৃত্বে জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে পিরোজপুরের সকল শ্রেনি পেশার মানুষ আজ ঐক্যবদ্ধ। তার সাফল্যে ঈর্ষান্বিত হয়ে রাজনৈতিক স্বার্থান্বেষী একটি গোষ্ঠী সুকৌশলে তার ভাবমৃর্তি ক্ষুন্ন করার অসৎ উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদকে ব্যবহার করে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন অভিযোগ আনয়ন করেছেন। নেতৃবৃন্দ বলেন, এমপি আউয়াল শুধু নিজের নির্বাচনী এলাকায়ই  নয় তিনি জেলার সকল উপজেলার উন্নয়নে সাধ্যমত সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন। কাউখালীর মহা-শ্মশ্বানঘাট স্থাপনে তার ভূমিকা ছিল অনস্বীকার্য। নেতৃবৃন্দ উল্লেখ করেন, গত ৭ অক্টোবরের দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকার সংবাদে বলা হয়েছে-   “ পিরোজপুরের সাংসদ এ.কে.এম.এ আউয়ালের বিরুদ্ধে স্বরুপকাঠীতে এক ব্যবসায়ীর দোকান দখলের অপপ্রয়াস চালানোর অভিযোগ উঠেছে।” অর্থাৎ রিপোর্টটিতে স্পষ্টত:ই বোঝা যায়, অভিযোগটি সম্পূর্ন তথ্যবিহীন যা নি:সন্দেহে ভিত্তিহীন। আমরা কেন্দ্রীয় সংগঠনের শাখা সংগঠন হওয়া সত্বেও আমাদেরকে পাশ কাটিয়ে কেন্দ্রীয় সংগঠনের মাধ্যমে এ ধরনের মিথ্যা অভিযোগ আনায়ন করা চরম আপত্তিকর। নেতৃবৃন্দ এ ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে এর পেছনে যাদের সূক্ষ্ম হাত রয়েছে সে সকল ঈর্ষা পরায়ন স্বার্থান্বেষীদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনার দাবী জানিয়েছেন।


বার্তা প্রেরক
সৈয়দ বশির আহম্মেদ
কাউখালী, পিরোজপুর।
১০.০৮.১৫
Post a Comment

Post Bottom Ad

Pages